কুশন কভার দিয়ে সহজেই ঘরসজ্জায় যেভাবে নতুনত্ব আনবেন

যতই মনের মতন করে ঘর সাজান না কেন, কিছুদিন পরেই ঐসজ্জায় একঘেয়েমি চলে আসবেই। আসুন জেনে নেয়া যাক, কুশন কভার দিয়ে সাঁজ-সজ্জায় কিভাবে বৈচিত্র্যতা ও নতুনত্ব আনা যাবে আর সেই সাথে আরও জেনে নেই কুশন কভার সিলেকশনের দুর্দান্ত কিছু টিপস।
এই সেটটি অর্ডার করতে চাপ বা ক্লিক করুন

সোফা, ডিভানের কভার তো প্রতিদিন পাল্টানো যাবে না তাই ঘরের সাঁজসজ্জার সাথে মিলিয়ে কয়েক সেট কুশন কভার সংগ্রহ করে কিছু দিন পর পর কভারগুলো অদল বদল করে জায়গা পরিবর্তন করে সাজিয়ে গৃহসজ্জায়  আনতে পারেন নতুনত্বের আমেজ। বৈচিত্র্যতার জন্য কুশন কভার গুলো  বিভিন্ন সাইজ, ডিজাইন ও ফ্যাব্রিকের হতে হবে।

বেডরুমের বেডে, লিভিং স্পেসের শতঁরঞ্জিতে, চাইল্ড রুম বা বারান্দার এক কোণে রাখা দোলনাটাতেও আরামের জন্য কুশন ব্যবহৃত হয় আর এই কুশনকে ঢেকে রাখতেই তৈরি হয়েছে নিত্যনতুন ডিজাইনের  কুশন কভার। আরাম-আয়েশের জন্য রাজ-বাদশার আমল থেকে এই কুশনের ব্যবহার শুরু হয়। সময়ের আবর্তে গৃহসজ্জার ফ্যাশনের পরিবর্তনের ধারায় কুশনের সাইজে এসেছেন ভিন্নতা আর নতুনত্ব, সঙ্গে কুশন কভারেও এসেছে পরিবর্তন, ভিন্নতা এসেছে ডিজাইনেও।

গৃহের লোকেশন ভেদে ভিন্ন ভিন্ন সাইজের কুশন কভার ব্যবহার করা যেতে পারে। সোফা বা দেয়ালের রং বা গৃহসজ্জার অন্যান্য আসবাবপত্রের সাথে সামাঞ্জ্য রেখে কুশন কভার নির্বাচন করতে পারেন আবার ঋতুর সঙ্গে মিল রেখেও কুশন কভার নির্বাচন করতে পারেন।

সোফার বা ডিভানের জন্য ১৬ বাই ১৬ ইঞ্চি অথবা ১৮ বাই ১৮ ইঞ্চি কভার ব্যবহার করতে পারেন। গৃহের বিভিন্ন এরিয়াতে ব্যবহৃত হচ্ছে ফ্লোরাল, সিনারি, জিওমেট্রিক বা ট্রাইবাল ডিজাইনের কভার আবার সলিড কালারের কভারও বেশ জনপ্রিয়।

বর্তমানে চারকোনা, গোল কুশনের সঙ্গে নতুন নতুন আকৃতির কুশন যোগ হয়েছে। কার্টুন আকৃতি বা কোলবালিশের মতো কুশনও ব্যবহার করতে দেখা যায়। এটা নির্ভর করবে আপনি কোন ঘরে কুশনটি রাখবেন। বাচ্চাদের ঘরের জন্য কার্টুন আঁকা কুশন ভালো হবে। আবার গাড়ির জন্য হলে ছোট গোলাকৃতির কুশন নিতে পারেন। দোলনা ও মাদুরের জন্য চারকোনা কুশনই ভালো দেখাবে। তবে বর্তমানে শোবার খাটে রাখা তিন-চার সারির কুশনে থাকে তিন-চার আকৃতি। একটির পাশে আরেকটি রেখে রং আর ডিজাইনে রাখা হয় ভিন্নতা।

শুধু নজরকাড়া রং হলেই তো হলো না, মাথায় রাখতে হবে ঘরের চারপাশের রং ও সাজসজ্জাকে। ঘরের আকৃতি থেকে শুরু করে আসবাবের অবস্থান, ঘরের রং সবকিছু মিলিয়েই বাছাই করতে হবে কুশন কাভারটি। এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো আপনার ঘরের পর্দার রং। অনেকে শুধু সোফা সেটের সঙ্গে মিলিয়ে কুশন কাভারটা তৈরি করেন। কিন্তু ঘরের আসল সৌন্দর্যে গুরুত্ব দিতে হবে পর্দার রং।

লিভিং রুমের পর্দা যদি গাঢ় রঙের হয় তাহলে কুশন কাভার একটু হালকা হলেই ভালো দেখাবে। আর হালকা রঙের পর্দার সঙ্গে বেছে নিতে পারেন গাঢ় রঙের কুশন। তবে তারতম্যটা যেন বেশি না হয়। দেওয়াল যদি হোয়াইট বা অফ হোয়াইট রঙের হয় সে ক্ষেত্রে কুশন কভার হতে পারে ক্রিম, হেজি হোয়াইট, অফ হোয়াইট বা পিচ কালারের মতো নরম রং। আবার চাইলে সম্পূর্ণ বিপরীত রঙের কুশন কাভার রাখতে পারেন। এ ক্ষেত্রে মানাবে কালো, গাঢ় চকলেট, গাঢ় লাল বা সবুজ এবং উষ্ণ রং। তবে বিপরীত রঙের কুশন কভার হলে ঘর খানিকটা ছোট বলে মনে হবে। শোয়ার ঘরের জন্য চাদরের রং গুরুত্বপূর্ণ।

বেডরুমের বেডে সাধারণত হালকা রঙের চাদর ব্যবহারে একটা স্নিগ্ধ ভাব আসে। তাই কুশন কভারটা সামান্য গাঢ় হলেই বেশি ভালো দেখায়। ফার্নিচার যদি কাঠ, বেত অথবা বাঁশের হয় তবে কভার হিসেবে অবশ্যই জিওমেট্রিক বা ট্রাইবাল ডিজাইনের কভার বেছে নিতে পারেন।

ঘরের বিভিন্ন অংশ সাজাতে ভিন্ন সাইজ আর ভিন্ন রঙের কুশন হতে পারে দারুণ সেলেকশন, হাল ফ্যাশনে ঘরের রং, পর্দা, বিছানার চাদর বা সোফা কভারের সঙ্গে মিলিয়ে কুশন কভার সেলেক্ট করেলে ঘরে আলাদা আভা যুক্ত হবে।

একই ধরনের বা একই আকারের কুশন কভার দিয়ে ঘর সাজাতে হবে এমন কোনো নিয়ম নেই। বেছে নিন বিভিন্ন আকারের কুশন। অদলবদল করে রাখুন ঘরের বিভিন্ন কোণায়। এতে দেখতে ভিন্নতা থাকবে। তাছাড়া রং নিয়েও এক্সপেরিমেন্ট চালিয়ে যান। শুধু সোফা বা ঘরের রং বুঝে নয়, প্রতিটি মৌসুমের সঙ্গে মানিয়ে কভারেও পরিবর্তন আনুন। পুরো ঘরকে নতুনভাবে সাজিয়ে তুলতে কুশন কভারে জুড়ি নেই। চিরচেনা ঘরে একঘেয়েমি দূর করে যদি এভাবে বুদ্ধি করে একটু নতুন ছোঁয়া আনা যায়, দিন শেষে ঘরে ফিরে দেহ-মনে আসে সজীব অনুভূতি, দূর হবে হতাশা।

ঘর সজ্জায় নতুনত্ব ও খরচের কথা মাথায় রেখে Instyle.com.bd বৈচিত্র্যময় ও ট্রেন্ডি সব ডিজাইনের কভার সরবরাহ করে হাজার হাজার আধুনিক আপুদের কাছে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে, তার প্রমান InStyle Fan গ্রুপের পোষ্ট অথবা প্রতিদিনের সন্ধ্যার লাইভে আপুদের লাইভ রিভিঊ কমেন্ট।

উন্নতমানের পলি-কটন সিনথেটিক ফেব্রিক্সের উপর ডিজিটাল প্রিন্টিংর কভারগুলো ১০০% কালার গ্যারান্টেড, কালার নষ্ট হলে পণ্য রিটার্ন করতে পারবেন।  মনমুগ্ধ ও নান্দনিক এই কভারগুলো দিয়ে ঘর সাজালে আপনার গৃহের পরিবেশটাই যাবে পালটে, আসবে নতুনত্ব, কাটবে একঘেয়েমি।

আপনি পাচ্ছেন, ডেলিভারী বয়ের সামনে পার্সেল খুলে শতভাগ নিশ্চিত হয়ে কভারগুলো রিসিভ করার সুযোগ। আর কেনার পরেও কোন সমস্যা হলে, অবশ্যই সমাধান করে দিব, ইনশা’আল্লাহ। ছবিতে দেখানো  ১৬ বাই ১৬ ইঞ্চি সাইজের ৫পিস কভার সেটের মুল্য মাত্র ১০০০ টাকা। ডেলিভারি  চার্জ ঢাকা শহরের মধ্যে ৮০টাকা আর বাহিরে ১৫০ টাকা। ঢাকার বাহিরে অর্ডার কনফার্ম করার জন্য ২০০ টাকা অগ্রিম দিতে হবে।

উন্নতমানের এই কুশন কভার নিজে যেমন ব্যবহার করতে পারেন তেমনি প্রিয়জনকে দেয়ার জন্য একটি রুচিশীল পছন্দসই  গিফট। অন্যান্যদের মত আপনার প্রিয়জনও এই গিফট পেয়ে মহা খুশি হবেন।

আর দেরি কেন? আকর্ষণীয় ও উন্নতমানের টুইল কটনের বেডসীট অর্ডার করতে পণ্যের ছবি, ডেলিভারী ঠিকানা ও মোবাইল নম্বরসহ এখনই আমাদের পেইজে মেসেজ করুন অথবা হোয়াটসঅ্যাপ করুন –  M. 01752435088

0
Product List
Your cart is emptyContinue to Shop